Welcome To হক টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড বিএম কলেজ

কারিগরি সিক্ষার অবদান , বেকার সমস্যার সমাধান।

একজন ছাত্রকে লেখাপড়া শিখিয়ে জ্ঞানদানের মাধ্যমে শারীরিক ও মানসিকভাবে পূর্ণাঙ্গ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা, যাতে সে আচরণের শুভ পরিবর্তন ঘটিয়ে সমাজে সুস্থ-সবল, সুন্দর সভ্য সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে পারে। দীর্ঘদিনের গৌরবময় ঐতিহ্য ধরে রাখার প্রয়াসে আধুনিক প্রযুক্তি বিপ্লব ও ভিশন-২০২১ এর লক্ষ্য উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে শ্রেণিকক্ষগুলোকে আধুনিক প্রযুক্তির সাথে যুক্ত করে শিক্ষার্থীকে দেশের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে এবং যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত করে তোলাই আমাদের অন্যতম লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

ছাত্রদের অবশ্যই পালনীয় নিয়মাবলী

 

  • পরম করুনাময় আল্লাহ তা’আলা সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করে সকল কাজ আরম্ভ করবে। স্ব স্ব ধর্মের বিধান মেনে চলবে।

  • মাতা-পিতা, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও বড়দের শ্রদ্ধা করবে এবং সালাম দেবে।

  • সৎ চিন্তা করবে, সৎ পথে চলবে, সত্য কথা বলবে, অন্যায়কে ঘৃণা এবং প্রতিহত করতে চেষ্টা করবে।

  • অধ্যবসায়ী ও পরিশ্রমী হবে। জীবনে সফলতার জন্য আল্লাহ/সৃষ্টিকর্তার উপর ভরসা করবে ও তার সাহায্য চাইবে।

  • স্কুল ইউনিফর্ম পরিধান করে নিয়মিত স্কুলে আসবে। স্কুল ইউনিফর্ম ছাড়া কোন অবস্থাতেই শ্রেণি এবং পরীক্ষার কক্ষে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না।

  • জাতীয় সংগীত, শপথ বাক্য ও মুসলমান ছাত্ররা সূরা ফাতিহা (বাংলা অর্থসহ) শুদ্ধ উচ্চারণে মুখস্ত করবে।

  • বিদ্যালয়ে কোন ছাত্র খেলার যে কোন সরঞ্জাম নিয়ে আসবে না।

  • ক্লাস বসার ১৫ মিনিট পূর্বে স্কুলে আসবে, যথারীতি ‘সমাবেশে’ যোগদান করবে এবং সেখান থেকে সারিবদ্ধভাবে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করবে।

  • শ্রেণির ঘন্টা বাজার পর ৫ মিনিটের মধ্যে যদি কোন শিক্ষক/শিক্ষিকা শ্রেণি কক্ষে না আসেন, তাহলে ‘শ্রেণি মনিটর’ সহকারী প্রধান শিক্ষক/শিক্ষিকা অথবা প্রধান শিক্ষককে অবশ্যই জানাবে।

  • স্কুল চলাকালীন সময়ে টিফিন পিরিয়ড ব্যতীত কোন ছাত্র শ্রেণিকক্ষের বাইরে কোথাও অনুমতি ছাড়া যেতে পারবে না।

  • শ্রেণি কক্ষের ময়লা-আবর্জনা, টিফিনের বর্জ্য ইত্যাদি যত্রতত্র জায়গায় না ফেলে ক্লাসে সংরক্ষিত ঝুড়িতে ফেলবে। মনে রেখো পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ ও ভদ্রতা রুচির পরিচায়ক।

  • টিফিন পিরিয়ডে দিবা শাখার মুসলিম ছাত্ররা জোহরের নামাজ আদায় করবে।

  • টিফিনের পর ওয়ার্নিং বাজার সাথে সাথে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করবে।

  • স্কুলের সম্পদ কেউ নষ্ট করলে উচ্চহারে জরিমানা আদায় করা হবে।

  • খেলাধুলা এবং বিদ্যালয়ের যেকোন অনুষ্ঠানের শান্তি-শৃঙ্খলা-একতা বজায় রেখে অনুষ্ঠানকে সুন্দর ও সফল করতে আন্তরিকভাবে চেষ্টা করবে।

  • কোন ছাত্র স্কুল পালালে তাকে কঠোর শাস্তি ভোগ করতে হবে।

  • নিয়মিত পড়া শিখে স্কুলে আসবে এবং বাড়ির কাজ করে আনবে।

  • শ্রেণিতে পাঠদান করার সময় মনোযোগ দিয়ে শুনবে এবং বুঝতে চেষ্টা করবে। কোন পাঠ ভাল ভাবে বুঝতে না পারলে আবার বুঝিয়ে দিতে শিক্ষককে অনুরোধ করবে।

  • প্রতি পিরিয়ডে শিক্ষকগণ যে পাঠদান করবেন তা সংক্ষেপে “দৈনিক পাঠের বিবরণী” বইতে লিপিবদ্ধ করবে। বইটি বুঝতে না পারলে শিক্ষকদের সাহায্য প্রার্থনা করবে। বইটির যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করবে। বইটি হারালে ৬০/= টাকার বিনিময়ে আবার সংগ্রহ করতে হবে।

  • পরীক্ষার হলে নকল করা, কথা-বার্তা বলা, বই-পত্র বা লেখা কোন কাগজ সঙ্গে আনা নিষেধ। এসব করলে তাকে বহিস্কার করা হবে।

  • ছুটির ঘন্টা বাজার পর শ্রেণিকক্ষের লাইট, ফ্যান বন্ধ করে সকল ছাত্র সারিবদ্ধভাবে নিঃশব্দে শ্রেণিকক্ষ ত্যাগ করবে।

  • স্কুলের দেয়ালে, দরজায়, জানালায় বা ডেস্কে কোন কিছু লিখলে কঠোর শাস্তি পেতে হবে।

  • ছাত্রদের একক বা কোন যৌথ আবেদন লিখিতভাবে শ্রেণি শিক্ষক/শিক্ষিকার মাধ্যমে প্রধান শিক্ষকের কাছে জমা দিতে হবে।

  • তিন মাসের বেতন একত্রে অন্যান্য পাওনাসহ জানুয়ারী-মার্চ, এপ্রিল-জুন, জুলাই-সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর-ডিসেম্বর মাসের নির্ধারিত দিনে আদায় করা হবে।

  • কোন ছাত্র একই ক্লাসে দু’বার ফেল করলে সরকারি আইন অনুযায়ী সে অত্র বিদ্যালয়ে পড়ার আর কোন সুযোগ পাবে না।

  • কোন ছাত্রের আচার-আচরণে ত্রুটি পরিলক্ষিত হলে, বিদ্যালয়ের বিধি-বিধান ও শৃঙ্খলা মেনে না চললে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে। প্রয়োজনে বিদ্যালয় থেকে টি.সি. প্রদান করা হবে।

  • জরুরী প্রয়োজনে বিদ্যালয়ের শ্রেণি শিক্ষকের নিকট থেকে টেলিফোন/মোবাইল যোগাযোগ/তথ্য জানা যাবে।

  • অর্ধবার্ষিক পরীক্ষার পর অভিভাবক দিবসে উত্তরপত্র অভিভাবককে নিয়ে শ্রেণিকক্ষে দেখতে হবে এবং শিক্ষকের সাথে কথা বলা যাবে। রেকর্ড যথাযথ সংরক্ষণের নিমিত্তে উত্তরপত্র বাড়িতে দেয়া হবে না।

Why Choose হক টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড বিএম কলেজ?

       সোনার বাংলা গড়তে হলে , সোনার মানুষ চাই।
মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জন নেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত রূপকল্প অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে হলে ডিজিটাল প্রযুক্তি ও প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পন্ন মানুষ প্রয়োজন। জাতির জনক বঙ্গ বন্ধু বলেছেন সোনার বাংলা গড়তে হলে সোনার মানুষ চাই। সোনার বাংলা বলতে তিনি হয়তো বোঝাতে চেয়েছেন আজকের উন্নত তথা ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং সোনার মানুষ মানে প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল মানুষ। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার জন্য তাই প্রয়োজন ডিজিটাল মানুষ। ডিজিটাল মানুষ তৈরির জন্য প্রয়োজন ডিজিটাল প্রযুক্তি নির্ভর কারিগরি ও বৃত্তি মূলক শিক্ষা। বাংলাদেশের বিশেষায়িত বেসরকারি কারিগরি স্কুল, ঘাটাইলে পূর্বাঞ্চলে এই প্রথম "হক টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড বিএম কলেজ " অনুমোদনে আমরা সরকারের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।

Our Teachers